ইউপি নির্বাচন: রামগঞ্জে নির্বাচনী অফিস ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ,আটক-৭

প্রকাশিত: ৮:১৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৬, ২০২১

রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি:

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ নির্বাচনী অফিস ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করেছে দুর্বত্তরা। এ তিনটি ঘটনার মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী নির্বাচনী অফিস ভাচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় মামলা নেয়নি পুলিশ।  অপরদিকে কেন্দ্রে আসলেই স্বতন্ত্র প্রার্থীও সমর্থিত লোকজনকে গ্রেফতার করা হবে দেখানো হচ্ছে ভয়ভীতি। অভিযোগ করেছেন ইছাপুর ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আমির হোসেন খাঁন। তিনি জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার (২৫ শে নভেম্বর) রাত সাড়ে ৮ টার দিকে রামগঞ্জের ইছাপুর ইউপির নয়নপুর এলাকায় তাকে ফাসাতে ও ভোটারদের মাঝে আতংক ছড়াতে নৌকার সমর্থিত শাহনাজ আক্তারের নির্বাচনী অফিসে ভাংচুরের নাটক সাজানো হয়। প্রচার করা হয় নৌকার নির্বাচনী অফিসে ও অগ্নিসংযোগ করে অফিসের চেয়ার-টেবিল ভাংচুর করে হামলাকারীরা।

এরপর পরই ওই রাতে ইছাপুর ইউনিয়নে তার আনারস মার্কার নির্বাচনী অফিস উত্তর শ্রীরামপুর এলাকায় অগ্নিসংযোগ করা হয়। এ ঘটনা দুটির পর থেকে ওই ইউনিয়নে আতঙ্ক ছড়াতে তারা বেশ কিছু ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় হামলা কারীরা। একই ঘটনা ঘটে ওই উপজেলার ভাটরা ইউনিয়নেরও। তবে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ায় রামগঞ্জ থানার ওসি আনোয়ার হোসেন মামলা নেয়নি। এছাড়া তিনি তার এলাকায় আওয়ামী সমর্থিত প্রার্থীর দেয়া মিথ্যা মামলা নিয়েছেন।

তবে পুলিশ জানান,নির্বাচনী অফিস ভাংচুরের ঘটনাই রামগঞ্জ থানায় তিনটি মামলা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে রাতেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। এছাড়া মামলার পর এজহার নামিয় ৭ জনকে আটক করে পুলিশ। তবে পরিস্থিতির সার্থে আটকদের নাম প্রকাশ হচ্ছেনা ।

ইছাপুর ইউনিয়নে নৌকা মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহনাজ আক্তার জানিয়েছেন, শান্তিপূর্ণ ভোট চান তিনি। নির্বাচনে ভোটাররা যাতে কেন্দ্রে এসে ভোট দিতে পারে এ জন্য তিনি প্রশাসনের সুষ্ঠু পরিবেশ দেখতে চান উল্লেখ করেন তিনি।

এ বিষয়ে রামগঞ্জ থানার ওসি আনোয়ার হোসেন বলেছেন, বৃহস্পতিবার রাতে কয়েকটি চেয়ারম্যান প্রার্থীদের নির্বাচনী অফিস ভাংচুরের ঘটনার খবরে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। সেই ঘটনায় তদন্তকরে মামলা নেয়া হয়েছে। এ পুলিশ এ পর্যন্ত ভাংচুরের ঘটনায় ৭ জনকে আটক করেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ কাজ করছে।

উল্লেখ্য, তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে (ইউপি নির্বাচন-২০২১) আগামী ২৮ নভেম্বর রামগঞ্জ উপজেলার ভাটরা ইউনিয়নসহ ১০ টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

 

 

ভুলুয়াবিডি/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন।