এপ্রিল-মে মাসের সুদ মওকুফের প্রস্তাব ডিএসই’র

প্রকাশিত: ৩:১২ অপরাহ্ণ, মে ২৮, ২০২০

শেয়ারবাজারের লেনদেন বন্ধ থাকায় বিপাকে পড়েছেন মার্জিন ঋণ নিয়ে বিনিয়োগ করা ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরা। তাদের আয় না থাকলেও দিতে হবে ধার্যকৃত অর্থসুদহার।

এ অবস্থায় ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের এপ্রিল, মে মাসের সুদ মওকুফ করার পাশাপাশি আগামী ছয় মাসের জন্য মোট সুদহারের ৪ শতাংশ সুদ সহায়তা দেয়ার প্রস্তাব দিয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ।

করোনার নেতিবাচক প্রভাব থেকে রক্ষায় দুই মাস ধরে বন্ধ শেয়ারবাজারের লেনদেন।

শেয়ার বেচাবিক্রি বন্ধ থাকায় আয় নেই বিনিয়োগকারী এবং ব্রোকারেজ হাউজগুলোর। এতে বিপাকে পড়েছেন মার্জিন ঋণ নিয়ে বিনিয়োগ করা ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরা। আয় না থাকলেও দিতে হবে ঋণ করা অর্থের সুদ।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, অনেক বিনিয়োগকারী আছেন, যাদের আয়ের পুরোটাই শেয়ারবাজার নির্ভর। লেনদেন বন্ধ থাকায় বন্ধ রয়েছে তাদের আয় রোজগার।

বাজারসংশ্লিষ্টরা বলেন, করোনার ক্ষতি কাটাতে সরকার লাখ কোটি টাকার প্রণোদনা ঘোষণা করলেও, বিনিয়োগ- কারীরা তার সুফল পাচ্ছেন না। তাই প্রণোদনার আওতায় সুদ মওকুফের দাবি তাদের।

ঋণদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোকে ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের সুদ মওকুফের উদ্যোগ নেয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। প্রয়োজনে, নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসিকে সুনির্দিষ্ট ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান তাদের। নিউজজি

ভুলুয়া বাংলাদেশ/এএইচ