কাস্টমসের ভুয়া ফেসবুক পেইজ খুলে প্রতারণা,আটক ১

প্রকাশিত: ৫:৫৯ অপরাহ্ণ, জুন ৪, ২০২০

এসএম স্বপন,যশোর: দীর্ঘদিন ধরে যশোরের বেনাপোল কাস্টমস হাউজকে ফলোআপ করে ফেইসবুকে ‘বাইক সেল’ নামে একটি ভুয়া অফিশিয়াল ফেসবুক পেইজ খুলে নিলামে ভারতীয় মোটরসাইকেল বিক্রির মূল প্রতারণাকারী আরমান (২৮) কে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (৩ জুন) দিনগত রাতে ঢাকা থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। আটক আরমান কুমিল্লা জেলার মৃতঃ শাহ আলমের ছেলে।

সূত্রমতে, ভারত থেকে নিয়ে আসা বৈধকাগজপত্র বিহীন মোটরসাইকেল বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে আটকের পর, তা বেনাপোল কাস্টমস হাউজে জমা করা হয়। পরবর্তীতে বেনাপোল কাস্টমস কর্তৃপক্ষ রাজস্ব বোর্ডের নির্দেশানুযায়ী সেই মোটরসাইকেলগুলো নিলামে তোলেন।

পরে সেই আটকৃত মোটরসাইকেলগুলো সার্কুলার অনুযায়ী বিভিন্ন ক্রেতাগণ মোটরসাইকেলগুলো দরপত্রের মাধ্যমে কাস্টমস হাউজ থেকে নিলামে কিনে থাকেন।

এক শ্রেণির প্রতারক চক্র সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে বেনাপোল কাস্টম হাউজকে ফলোআপ করে ফেইসবুকে ‘বাইক সেল’ নামে একটি ভুয়া অফিসিয়াল পেইজ খোলে। তারপর সেই পেইজের মাধ্যমে মানুষকে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে, বোকা বানিয়ে দেশের দূর-দূরান্তের মোটরসাইকেল ক্রেতাদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেন।

এমন অসংখ্য ক্রেতাদের অভিযোগের ভিত্তিতে বেনাপোল কাস্টমস হাউজের চোখে সেই ভুয়া অফিশিয়াল পেইজটি দৃষ্টিগোচর হলে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে-২০১৮ সালের (০১ জুনে) বেনাপোল কাস্টমসের পক্ষে রাজস্ব কর্মকর্তা নাঈম মিরন বাদী হয়ে বেনাপোল পোর্ট থানায় ১টি মামলা দায়ের করেন, যার মামলা নং-২৬।

তিনি জানান, বেনাপোল কাস্টম হাউসকে জড়িয়ে একটি প্রতারক চক্র ফেইসবুকে ‘বাইক সেল’ নামে একটি ভুয়া অফিসিয়াল পেইজ খুলে প্রতারণার মাধ্যমে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।

এমন অভিযোগের ভিত্তিতে এ বিষয়টি কাস্টমের নজরে আসলে তাৎক্ষণিকভাবে মামলা দায়ের করা হয়। কাস্টম কর্তৃপক্ষের ধারণা, এই প্রতারক চক্র ভারত থেকে চোরাই পথে মোটরসাইকেল এনে এই ভুয়া পেইজের মাধ্যমে বিক্রি করে থাকেন।

বেনাপোল পোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন খান বলেছেন, বেনাপোল কাস্টমস কর্তৃপক্ষ বাদী হয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেন।

সেই মোতাবেক প্রধান আসামি আরমানকে ঢাকা থেকে এনে গ্রেফতার করা হয়। আটক আসামিকে যশোর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

ভুলুয়া বাংলাদেশ/এএইচ