গণটিকা আপাতত বন্ধ

প্রকাশিত: ৫:২৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৫, ২০২১

করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে পর্যাপ্ত টিকা হাতে না আসায় আপাতত গণটিকা কার্যক্রম শুরু হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রমের জন্য যথেষ্ঠ টিকা হাতে এলেই ফের গণটিকা কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানান তিনি।

আজ রবিবার (১৫ আগস্ট) দুপুরে মহাখালীতে বিসিপিএস মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠান শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন।

জাহিদ মালেক বলেন, টিকা পেতে চীনের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হচ্ছি। যৌথভাবে টিকা উৎপাদনের বিষয়ে আগামী সপ্তাহে চুক্তি হবে। রাশিয়ার সঙ্গে আমাদের টিকা চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে। এখন টিকা পেতে অপেক্ষায় আছি। ভারতের কাছে পাওনা আছে দুই কোটি ৩০ লাখ টিকা। কোনো কার্যক্রম আটকে নেই। টিকা পাওয়া সাপেক্ষে গণটিকা কার্যক্রম আবারও শুরু হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, এ সপ্তাহে আমরা ৫৪ লাখ টিকা পেয়েছি। মাসের শেষ সপ্তাহের মধ্যে আরও ৫০ লাখ টিকা আসবে। এরমধ্যে আমাদের জন্য স্বাভাবিক টিকা কার্যক্রম চলমান থাকবে।

কোভিড সংক্রমণ ১২ শতাংশ কমেছে জানিয়ে জাহিদ মালেক বলেন, দেশে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি কমতে শুরু করেছে। গতমাসেও আমাদের সংক্রমণ পরিস্থিতি অনেক খারাপ ছিল। সংক্রমণের হার ৩২ শতাংশে উঠে গিয়েছিল। এখন এটা কমে ২০ শতাংশের মধ্যে চলে এসেছে। তবে সংক্রমণ ও মৃত্যু কিছু কমলেও আমরা সন্তুষ্ট নই, আমরা ৫ শতাংশের নিচে সংক্রমণ চাই।

গত ৭ আগস্ট থেকে সারাদেশের সিটি করপোরেশন ও ইউনিয়ন পরিষদ পর্যায়ে গণটিকা কার্যক্রম শুরু করে সরকার। জাতীয় পরিচয়পত্র দেখিয়ে টিকা নেন মানুষ। তবে প্রতিটি কেন্দ্রে টিকা গ্রহণকারীর সংখ্যা নির্ধারিত থাকায় অনেকে টিকা নেয়ার জন্য কেন্দ্রগুলোর সামনে দীর্ঘসময় অপেক্ষা করেও টিকা পাননি। গত ১২ আগস্ট ছয় দিনব্যাপী গণটিকা কার্যক্রম শেষ হয়েছে।

 

 

ভুলুয়াবিডি/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন।