চলতি মাস থেকেই গামেন্টস শ্রমিক ছাটাই

প্রকাশিত: ২:০৮ পূর্বাহ্ণ, জুন ৫, ২০২০

দেশের গার্মেন্টস ইন্ডাস্ট্রিগুলোর অনেক অর্ডার বাতিল হয়ে যাওয়ার কারণে বর্তমানে কাজ করতে হচ্ছে ৫৫ শতাংশ ক্যাপাসিটি নিয়ে। তাই শতভাগ শ্রমিক নিয়ে কাজ করা সম্ভব না বলে চলতি জুন মাস থেকেই শ্রমিক ছাঁটাই শুরু হবে বলে জানান বিজিএমইএ সভাপতি ড. রুবানা হক।

বৃহস্পতিবার (৪ জুন) গাজীপুরের চন্দ্রা এলাকায় বিজিএমইএ’র করোনা শণাক্তকরণ ল্যাব উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে ভার্চুয়াল বক্তব্যে এ কথা বলেন বিজিএমইএ সভাপতি ড. রুবানা হক।

তিনি জানান, আগের চেয়ে অর্ধেক অর্ডার কমে গেছে কারখানাগুলোতে। ২২৭৪টির মাঝে উৎপাদনে আছে ১৯২৬টি কারখানা। ৪৬টি কারখানার প্রায় ১৮ হাজার শ্রমিকের কয়েক মাসের বেতন বাকি রয়েছে।

এছাড়া বেশ কিছু কারখানা ঈদের আগে তাদের বোনাস দিতে পারেনি। তবে এসব কারখানা আগামী ৬ মাসের মধ্যে পর্যায়ক্রমে বোনাস-বকেয়া দিয়ে দেবে।

রুবানা হক বলেন, গার্মেন্টস শ্রমিকদের জন্য বিল গঠন নিয়ে সরকারের সাথে আলোচন করা হবে। তবে এর আগে অর্থাৎ জুন মাসে যারা চাকরি হারাবে তাদের বিষয়ে আমরা কোনো পদক্ষেপ নিবো না। এপ্রিল ও মে মাসে যারা ছাঁটাই হয়েছেন তাদের বিষয়টি আমরা বিবেচনা করবো।

ড. রুবানা আরও বলেন, সব দিক বিবেচনা করে শতভাগ শ্রমিক নিয়ে কাজ করা সম্ভব হবে না। এ কারণে চলতি মাস (জুন) থেকেই শ্রমিকদের ছাঁটাই করা হবে।

 

ভুলুয়া বাংলাদেশ/এএইচ