জ্বর ও প্রচণ্ড শ্বাসকষ্টে হাসপাতাল পরিচালকের মৃত্যু

প্রকাশিত: ৪:১৫ অপরাহ্ণ, জুন ১৭, ২০২০

নভেল করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেলেন মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক (বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি) ডা. আশরাফুজ্জামান (খোকন)। বুধবার (১৭ জুন) সকালে তিনি কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা যান।

বুধবার (১৭ জুন) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডা. আশরাফুজ্জামানের ভাই আসাদুজ্জামান রিপন। তিনি বলেন, ‘জ্বর আর প্রচণ্ড শ্বাসকষ্ট নিয়ে তিনি মারা যান।

আসাদুজ্জামান রিপন আরও বলেন, গত সোমবারও ডা. আশরাফুজ্জামান আমেরিকা বাংলাদেশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এক দগ্ধ রোগীকে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত অস্ত্রোপচার করেছিলেন।

এরপর বাসায় ফিরে নামাজ পড়েছিলেন। তারপর রাতে নিজের বাসার ভাড়াটিয়াদের কাছ থেকে ভাড়া নিয়েছেন। তএরপর খাওয়া শেষে রাতে ঘুমালেন। ভোর থেকে প্রচণ্ড জ্বর শুরু। বিকেল থেকে শ্বাসকষ্টও শুরু হয়।

আসাদুজ্জামান রিপন আরও বলেন, এরপর রাতে তাঁকে রাজধানীর কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে তাঁকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। আজ বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তিনি মারা যান।

আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, আজ সকালে আমার ভাইয়ের করোনার নমুনা সংগ্রহের কথা ছিল। নমুনা সংগ্রহ করা হলো, কিন্তু মৃত্যুর পর! চিকিৎসকরা বলছেন, তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

এখন আল মার্কাজুল ইসলাম আমার মেজ ভাইয়ের লাশ গোসল করাচ্ছে। খানিক বাদে নিয়ে আসবে শাহজাহানপুর কবরস্থানে। সেখানেই তাঁর দাফন সম্পন্ন করা হবে।

আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, ‘ডা. আশরাফুজ্জামান সর্বশেষ মুগদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের পরিচালক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এখন তিনি অবসরের প্রস্তুতিমূলক ছুটিতে (এলপিআর) আছেন। চলতি মাসের ২৮ তারিখে তাঁর চাকরি মেয়াদ শেষ ছিল।’

ডা. আশরাফুজ্জামান ছোট ভাই আসাদুজ্জামান রিপন বর্তমানে এনটিভি অনলাইনে কর্মরত আছেন। আশরাফুজ্জামান সারা জীবন চিকিৎসাসেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখলেও বিয়ে করেননি জীবনে।

 

ভুলুয়া বাংলাদেশ/এমএএইচ