ট্রাম্প স্বাক্ষর দিলেন পুলিশে সংস্কারে নির্বাহী আদেশে

প্রকাশিত: ১২:৪৮ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৭, ২০২০

পুলিশে বেশ কিছু সংস্কারে নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পুলিশের নৃশংসতার বিরুদ্ধে কয়েক সপ্তাহব্যাপী আন্দোলনের পর এই উদ্যোগ নিলেন তিনি। অবশ্য পুলিশকে নিস্ক্রিয় বা এই সংস্থাটিকে ভেঙে ফেলতে বিক্ষোভকারীরা যে দাবি জানিয়ে আসছে তা প্রত্যাখ্যান করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

এই সংস্কার আদেশের মধ্যে রয়েছে পুলিশের কর্মপদ্ধতির উন্নয়নে কেন্দ্রীয় সরকারের বরাদ্দ বৃদ্ধি, যেসব কর্মকর্তা নির্যাতন করেন তাদের তালিকা তৈরি।

মঙ্গলবার হোয়াইট হাউজে সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প জানান, প্রিয়জন হারানো বহু আফ্রিকান-আমেরিকান পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে তিনি দেখা করেন। তবে বিক্ষোভকারীদের লুটাপাটকারী ও নৈরাজ্যকারী আখ্যা দিয়ে পুলিশের পক্ষে তার অবস্থান জানান।

ট্রাম্প বলেন, আমাদের একটি সর্বজনীন ভিত্তি খুঁজে বের করতে হবে। তবে আমি কঠোরভাবে আমাদের পুলিশ বিভাগকে মৌলিকভাবে অপদস্থ করা, ভেঙে দেওয়া ও অবসান করার বিরোধী।

ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, পুলিশ না থাকলে বিশৃঙ্খলা  থাকবে। আমেরিকানদের বিশ্বাস, নীল পোশাকের সাহসী পুরুষ ও নারীরা, যারা আমাদের সড়কের ওপর নজরদারি করে এবং আমাদেরকে নিরাপদে রাখে তাদেরকে অবশ্যই সমর্থন করতে হবে।

আমেরিকানরা আরও বিশ্বাস করে, আমাদের অবশ্যই দায়বদ্ধতার উন্নয়ন ঘটাতে হবে, স্বচ্ছতা বৃদ্ধি করতে হবে এবং পুলিশের প্রশিক্ষণ,নিয়োগ ও কমিউনিটির সঙ্গে তাদের সম্পৃক্ততায় আমাদেরকে অবশ্যই বিনিয়োগ বাড়াতে হবে।

গত মাসে যুক্তরাষ্ট্রের মিনিয়াপোলিস শহরে এক শেতাঙ্গ পুলিশের নৃসংতার শিকার হন কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েড। ওই কর্মকর্তা ৯ মিনিট ধরে হাঁটু দিয়ে ফ্লয়েডের শ্বাসনালী চেপে ধরেছিলেন। এর ফলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়ার পর সারাদেশে বর্ণবাদ ও পুলিশের নৃশংতার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে রাস্তায় নামে হাজার হাজার মানুষ। যুক্তরাষ্ট্রের এই আন্দোলন ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বের আরও কয়েকটি দেশে। দ্য গার্ডিয়ান

 

ভুলুয়া বাংলাদেশ/এমএএইচ