তালিকা অনুযায়ী বাজেট অধিবেশনে যাবেন সংসদ সদস‌্যরা

প্রকাশিত: ৬:৫৯ অপরাহ্ণ, জুন ১, ২০২০

আসছে বুধবার (১০ জুন) শুরু হবে জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশন। এ উপলক্ষে বেশকিছু পরিকল্পনা করেছে জাতীয় সংসদ সচিবালয়। পরিকল্পনার অন্যতম হলো—সব সংসদ সদস্যকে বাজেট অধিবেশনে প্রতিদিন আসতে হবে না। তালিকা অুনযায়ী যাদের যেদিন আসার সিডিউল থাকবে তারা সেদিন আসবেন।

মহামারি করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ রোধে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে তথ্য জানা গেছে।

সংসদ সচিবালয় সূত্র জানিয়েছে, প্রবীণ ও অসুস্থ সংসদ সদস‌্যদের বাজেট অধিবেশনে আসতে নিরুৎসাহিত করা হবে। তবে যেন কোরাম (৬০ জনের উপস্থিতি সদস্য) পূর্ণ হয়, সেভাবে তালিকা করা হবে।

এদিকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তা-কর্মচারী ছাড়া অন্যদের সংসদ ভবনে আাসার অনুমতি দেওয়া হবে না। অধিবেশন যথাসম্ভব সংক্ষিপ্ত করার পরিকল্পনা রয়েছে। সাংবাদিকদের সংসদ ভবনে ঢুকতে দেওয়া হবে না।

সংসদে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা কর্মচারীদের নমুনা পরীক্ষা করা হবে। সংসদে যোগ দেওয়া সংসদ সদস‌্যদের নমুনা পরীক্ষার পরিকল্পনা করা হয়েছে। এছাড়া, সংসদ ভবনে সবার হাত ধোয়া ও স‌্যানিটাইজার ব‌্যবহারের ব্যবস্থা করা হবে। অধিবেশনে স্বাস্থ্যবিধি যথাযথ ভাবে পালন করা হবে।

১১ জুন বাজেট পেশের পর মাঝে মাঝে বিরতি হবে। ৭ থেকে ১০ কার্যদিবসের মতো অধিবেশন চলবে। বাজেট পাসের মধ্য দিয়ে ৩০ জুন অধিবেশন শেষ হবে।

জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী বলেছেন, বাজেট অধিবেশন গুরুত্বপূর্ণ অধিবেশন। করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) এর কারণে যত দ্রুত সম্ভব অধিবেশন শেষ করার চেষ্টা করা হবে।

সংসদ অধিবেশনের এক কর্মকর্তা জানিয়েছে, সাংসদদের একটি তালিকা করা হবে। তালিকা অনুযায়ী তারা সংসদ অধিবেশনে যোগ দেবেন। বাজেটের ওপর বক্তব্য দেবেন, এমন ৬০ থেকে ৭০ জনের তালিকা করা হবে।

ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া বলেন, তালিকা অনুযায়ী সংসদ সদস্যরা বাজেট অধিবেশনে যোগ দেবেন। কোরাম সংকট যেন না হয়, সেভাবে তালিকা করা হচ্ছে। যারা বাজেটের ওপর বক্তব্য রাখবেন তারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংসদ অধিবেশন হবে।

ভুলুয়া বাংলাদেশ/এএইচ