দুর্গাপুরে অবৈধ পুকুর খনন, প্রশাসন নিরব

দুর্গাপুরে অবৈধ পুকুর খনন, টনক নড়ছে না প্রশাসনের

প্রকাশিত: ১০:৪৩ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ৮, ২০২১

দুর্গাপুর (রাজশাহী) প্রতিনিধি: রাজশাহী জেলার দুর্গাপুরে অবৈধভাবে পুকুর খনন বন্ধের দাবিতে বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হওয়ার পরও কোনও রকম ব্যবস্থা গ্রহন করলেন না প্রশাসন। রাত-দিন অবাধে ৩ ফসলি জমিতে অবৈধভাবে পুকুর খনন চলছে।

বিষয়গুলো নিয়ে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের কৃষকেরা অবৈধভাবে পুকুর খনন বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন’সহ উপজেলা ভূমি অফিসার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার এমন কি জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ করে কোনও ব্যবস্থা গ্রহন না করায় প্রশাসনের উপর আস্থা হারান এলাকার সাধারণ কৃষকেরা।

এদিকে, সৃষ্ট এ ঘটনায় এলাকায় প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এলাকা ঘুরে জানা যায়, উপজেলার পানানগর ইউনিয়ন ডাঙ্গির পাড়া বিলে ৩ ফসলি জমিতে ৩ নং পানানগর ইউপি চেয়ারম্যান এর ভাই মহিদুল ২টি ২৪ বিঘার অবৈধভাবে পুকুর খনন করছেন। সেখানে ভেকু সরবরাহ করছেন মোশাররফ।

তেবিলা মোড়ের পশ্চিম দক্ষিণ পার্শ্বে ৩ ফসলি জমিতে অবৈধভাবে পুকুর খনন করছেন রেজাউল করিম প্রায় ১২ বিঘা ও তেকাটিয়া বিলের পৃর্ব পার্শ্বে সরব, সেখানে ভেকু সরবরাহ করেছেন মোশাররফ একই স্থানে মোজাম্মেল ও আজেম ৩ ফসলি জমিতে অবৈধভাবে পুকুর খনন করছেন মোজাম্মেল ও আজেম তেকাটিয়া বিলে তিন ফসলি জমি নষ্ট করে পুকুর খনন করছে কালাম, তার পার্শ্বে মজিবর পুকুর খননের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

এ দিকে নারায়নপুরের বিলে অবৈধভাবে পুকুর খনন করে মোজাম,আমজাদ, কালামের মোট ৫টি অবৈধ পুকুর খনন করছেন। সেখানে বিভিন্ন দালালের দল ভেকু সরবরাহ করছেন। অপর দিকে উপজেলার আংরার বিলে আওয়াল এর অবৈধ ১০০ বিঘার ৩ টি পুকুর খননের খবর প্রকাশিত হলে আওয়াল বলেন, প্রশাসন আমার পুকুর থেকে ভেকু গাড়ির চাবি নিয়ে গেলেও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমাকে ডেকে ভেকু গাড়ির চাবি ফেরত দিয়েছে, আমার বিরুদ্ধে নিউজ ফিউজ করে কোন লাভ নাই, উপজেলা প্রশাসন ও নেতাদের ম্যানেজ করে পুকুর খনন করছি।

আওয়াল আরও বলেন- সবাই আমার হাতের মুঠোয়, আমার পুকুর খনন কেউ বন্ধ করতে পারবে না বলেও জানান। এব্যাপারে দুর্গাপুর উপজেলার নির্বাহী অফিসার মহসীন মৃধাকে ০১৭৬২৮৬৫৬১৬ নম্বরে বার বার ফোন করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নাই।

 

 

ভুলুয়াবিডি/এএইচ

নিউজটি শেয়ার করুন।