এমপি পাপুল

পাপুলের কোম্পানির সঙ্গে ক্লিনিং সেবা বাতিল করেছে কুয়েতি বিমানবন্দর

প্রকাশিত: ৩:৩৯ অপরাহ্ণ, জুলাই ৮, ২০২০

মানবপাচার ও অর্থপাচারের অভিযোগে কুয়েতে আটক বাংলাদেশের সাংসদ শহিদ ইসলাম পাপুলের কোম্পানির সঙ্গে কুয়েত ইন্টারন্যাশনাল বিমানবন্দর নতুন করে ক্লিনিং সেবা প্রদানের চুক্তি বাতিল করেছে। কুয়েতের সেন্ট্রাল এজেন্সি অব পাবলিক টেন্ডার (সিএপিটি) এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার (৭ জুলাই) কুয়েতি ইংরেজি দৈনিক আরব টাইমসের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়।
আরব টাইমসের খবরে বলা হয়, জেলে থাকা বাংলাদেশি সাংসদের বিরুদ্ধে মানবপাচার, অর্থপাচার-ভিসা বাণিজ্যের অভিযোগে তদন্ত চলায় কুয়েতের সেন্ট্রাল এজেন্সি অব পাবলিক টেন্ডার (সিএপিটি)।

সিদ্ধান্ত নিয়েছে, পাপুলের কোম্পানির সঙ্গে নতুন করে ক্লিনিং সেবা প্রদানের চুক্তি নবায়ন করবে না বা বাড়াবে না কুয়েত ইন্টারন্যাশনাল বিমানবন্দর। কুয়েতের সিভিল এভিয়েশনের ডিরেক্টর জেনারেলের সঙ্গে যোগাযোগের ভিত্তিতে সেন্ট্রাল এজেন্সি অব পাবলিক টেন্ডার এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলেও জানায় আরব টাইমস।

আরব টাইমস আরও জানায়, কুয়েতের ইন্টারন্যাশনাল বিমানবন্দর বাংলাদেশি সাংসদের কোম্পানির সঙ্গে নতুন করে ক্লিনিং সেবা প্রদানের চুক্তি না বাড়ালেও দেশটির সরকারি অনেক এজেন্সির সঙ্গে এই সাংসদের চুক্তির মেয়াদ রয়েছে। সেগুলো বাতিল করার চিন্তা করছে কুয়েতি প্রশাসন।

গতকাল মঙ্গলবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন জানিয়েছেন, কুয়েতে আটক বাংলাদেশি সাংসদের প্রেপ্তারের পর একমাস অতিবাহিত হলেও এখনও কুয়েত সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশকে কোনো তথ্য দেয়নি।

অর্থ ও মানবপাচার, ভিসা বাণিজ্য ও ঘুষ লেনদেনের অভিযোগে বর্তমানে কুয়েতের কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছে সাংসদ পাপুল। গত ২৪ জুন বাংলাদেশি এই সাংসদকে কুয়েতের অ্যাটর্নি জেনারেলের নির্দেশে ২১ দিনের জন্য জেলে পাঠানো হয়। টানা ১৭ রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর পাপুলকে জেলে পাঠানো হয়।

সাংসদ পাপুলকে গত ৬ জুন কুয়েতে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর থেকে তার বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। কুয়েতের দুই সরকারি কর্মকর্তা ও এক স্থানীয়কে ভিসা বাণিজ্যের জন্য বিপুল ঘুষ দেওয়ার বিষয়টি পাপুল জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন। ৫০ লাখ কুয়েতি দিনারসহ (বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৩৭ কোটি ৮৮ লাখ ৮৩ টাকা) পাপুলের পাঁচটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দের নির্দেশ দিয়েছে কুয়েতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

সাধারণ শ্রমিক হিসাবে কুয়েত গিয়ে বিশাল সাম্রাজ্য গড়া পাপুল ২০১৮ সালে লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

পাপুলের বিরুদ্ধে ওঠা মানবপাচারের অভিযোগ তদন্ত হওয়ার বিষয়ে গত ফেব্রুয়ারিতে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছিল। সে সময় কুয়েত সিআইডির বরাত দিয়ে বাংলাদেশ থেকে মানবপাচার নিয়ে বেশ কয়েকটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে কুয়েতি পত্রিকা আল কাবাস ও আরব টাইমস। ঢাকাটাইমস

 

ভুলুয়াবিডি/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন।