ফকিরহাটে ‘মৎস্য ঘের’ দখলের চেষ্টা,বাধা প্রদানে হামলা

প্রকাশিত: ১:০১ অপরাহ্ণ, জুন ১৮, ২০২০

বাগেরহাট প্রতিনিধি: বাগেরহাট ফকিরহাটে ভোগ দখলীয় মৎস্য ঘের জবর দখলের চেষ্টায় রয়েছে এক দল দূর্বৃত্তরা।

জানা গেছে, গত রোববার (১৪ জুন) সকালে উপজেলার লখপুর ইউনিয়নের (উত্তরপাড়া) শিয়ালডাঙ্গা এলাকায় আতিয়ার রহমানের ভোগ দখলীয় মৎস্য ঘেরে তার নিজ ভাতিজা জাকারিয়া শেখ (১৮) ও শামীম (৪২) একত্রে
ঘেরে মাছের পোনা ছাড়তে যায়।

কিন্তু এ সময় একদল দূর্বৃত্ত আতিয়ার শেখকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং ঘের থেকে চলে যাবার হুমকি দিয়ে বলেন, এই ঘের এখন থেকে আমরা ভোগ দখল করব, এই ঘেরে মাছ ছাড়তে আসিস কেন? এখান থেকে চলে যা।

ওই মুহূর্তে ভাতিজা আতিয়ার রহমান প্রতিবাদ করলে তার ওপর অতর্কিত হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এতে গুরুতর জখম হয় আতিয়ার রহমান, জাকারিয়া শেখ এবং শামীম। তখন
গুরুতর আহতদের ভিতর আতিয়ার রহমান ও জাকারিয়া শেখকে পিঠে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত দেয় ও শামীমকে লোহার রড দিয়ে মাথায় আঘাত দিলে মাথা ফেটে যায়।

এ ঘটনার মধ্যেই তারা এলোপাতাড়ি পিটিয়ে জীবন নাশের হুমকি দেয়। আহতদের ডাক চিৎকারে এলাকাবাসী টের পেলে সটকে পড়ে দূর্বৃত্তরা। গুরুত্বর আহতরা এখন খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ব্যাপারে ফকিরহাট মডেল থানায় সাত জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে যার নং-৭ তাং- ১৬-০৬-২০২০।

আসামীরা হলেন- উপজেলার লখপুর ইউনিয়নের মৃত: ঈসমাইলের ছেলে মোহাম্মাদ শেখ (৬২), একই এলাকার বিল্লাল (৪৩), কামাল শেখ (৪০), আবু মুছা শেখ (৩৬), ঈছা শেখ (৩৬) উভয়ের পিতা মৃত: হারেজ শেখ, মৃত: ফজর আলীর ছেলে রফিক শেখ (৪৫), মোহাম্মাদ শেখ এর ছেলে মাছুম শেখ (৩০)।

ফকিরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু সাঈদ মো. খায়রুল আনামের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, এ বিষয়টি নিয়ে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। সঠিক তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের আইনের আইতায় আনা হবে।

 

ভুলুয়া বাংলাদেশ/এএইচ