বাগেরহাটে মিথ্যা অপবাদে এক দিনমজুরকে ফাঁসানোর চেষ্টা ও মারধর

প্রকাশিত: ১১:৪২ পূর্বাহ্ণ, জুন ২২, ২০২০

বাগেরহাট প্রতিনিধি: বাগেরহাট জেলার সদর উপজেলা বারুইপাড়া ইউনিয়নে সুতাল গ্রামের দেলোয়ার শেখের বিরুদ্ধে নিরীহ দিনমজুরকে মারধর ও মিথ্যা অপবাদ’সহ চাঁদা দাবির অভিযোগ উঠেছে।

ফকিরহাট উপজেলা সদর ইউনিয়নের পাইকপাড়া গ্রামের মৃত: আব্দুল রসিদ শেখের পূত্র শেখ রফিকুল ইসলাম (৪৯) সাইকেল কেনাবেচার মাধ্যম সূত্র ধরে পাশের উপজেলার বারুইপাড়া ইউনিয়নের সুতাল গ্রামের আসলাম শেখের বাসায় গিয়ে তাকে না পেয়ে তিনি ফিরে আসেন।

পরদিন সকালে দেলোয়ার শেখ তাকে ডেকে আসলামের স্ত্রী তানিয়াকে ধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগ দায়ী করে মারধর করেন এবং পরবর্তীতে তার কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করে টাকা দিলে মাফ করে দেবে এই কথা বলে।

এ বিষয়ে রফিকুল ইসলাম জানিয়েছেন, আমি গরীব মানুষ কোনো কারন ছাড়ায় দেলোয়ার ও তার লোকজন রফিক, দেলদার’সহ তার সহযোগীদের নিয়ে আমাকে বেধমভাবে মারধর করেছে।

এদিকে অভিযুক্ত দেলোয়ার শেখের সাথে কথা হলে তিনি মারধরের কথা স্বীকার করেনন। আর টাকা দাবির বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেছেন।

তানিয়ার স্বামী আসলাম শেখের সাথে কথা হলে জানান, আমার বাসায় আমার স্ত্রী তানিয়ার সাথে এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি। আমার স্ত্রী ও আমাকে কিছু জানায়নি।

তিনি আরো জানায়, আমার স্ত্রী’র আগে ৬ জায়গায় বিয়ে ছিল যা আমার কাছে গোপন রাখা হয়েছিল। সে দেলোয়ার শেখের সাথে যোগসূত্রে এসব অপকর্ম করে বেড়াচ্ছে বলে আমি জানতে পারি।

এ বিষয়ে এলাকাবাসির কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন, স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি নিরিহ এই রফিকুল শেখকে মিথ্যা অপবাদে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী জানিয়েছেন, আমাকে এবং আমার পরিবারের সন্মানহানী করার জন্য একটি কুচক্রী মহল উঠে পড়ে লেগেছে। আমি প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

 

ভুলুয়াবিডি/এএইচ