বিএনপি জোটে থাকছে না জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম

প্রকাশিত: ৪:০৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০২১

মুফতি আমিনী’র ইসলামী ঐক্যজোট-এর পর এবার বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট ছাড়তে যাচ্ছে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ। আজ যেকোনো সময় আনুষ্ঠানিকভাবে জোট ছাড়ার ঘোষণা দেবে দলটি।

সূত্র জানিয়েছে, মঙ্গলবার রাতে দলের শীর্ষ নেতারা এক বৈঠকে বিএনপি জোট ছাড়ার বিষয়ে একমত হয়েছেন। পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দেবেন।

হেফাজত ইস্যুর পর জমিয়তের প্রথম সারির একাধিক নেতা গ্রেফতার হয়ে কারাগারে আছেন। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছেন জুনায়েদ আল হাবিব, সিলেটের শাহীনুর পাশা চৌধুরী, মনজুরুল ইসলাম আফেন্দি, মনির হোসেন কাসেমী, খালিদ সাইফুল্লাহ সাদী ও মোহাম্মদ উল্লাহ জামী। দলের নেতারা বলছেন, নেতাকর্মীদের মামলা থেকে মুক্তি, কারাগারে থাকা নেতাদের জামিনসহ বিভিন্ন বিষয়ে সমঝোতার ভিত্তিতে বিএনপি জোট ছাড়তে রাজি হয়েছেন দলটির নেতারা।

দলটির যুব জমিয়ত নেতা সাইফুদ্দিন ইউসুফ ফাহিম বলেন, জোট ছাড়ার বিষয়ে একটা সিদ্ধান্ত হয়েছে। সিনিয়র নেতারা সময় মতো জানাবেন।

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম কওমী মাদ্রাসাভিত্তিক রাজনৈতিক সংগঠন। দলটির শীর্ষ নেতা মাওলানা নূর হোসাইন কাসেমী ও মুফতি মোহাম্মদ ওয়াক্কাস-এর সংগে বিরোধকে কেন্দ্র করে ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে দল ভেঙে যায়। দু’টি গ্রুপ হয়ে মূলধারার নেতৃত্বে ছিলেন বারিধারা মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল ও হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ-এর মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী। গত বছরের ১৩ ডিসেম্বর তিনি মারা যান। এরপর জমিয়ত-এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন মাওলানা জিয়া উদ্দীন।

আরেকটি গ্রুপ সাবেক মন্ত্রী মাওলানা মুফতি ওয়াক্কাস নেতৃত্ব দিতেন। তিনিও চলতি বছরের ৩১ মার্চ মারা যান। তাঁর মৃত্যুতে অনেকটা বিলুপ্ত হয়ে যায় এই অংশের কার্যক্রম। ১৯৮৬ সালের নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে যশোর-৫ আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন মুফতি ওয়াক্কাস। পরে তিনি জাতীয় পার্টিতে যোগ দিয়ে ১৯৮৮ সালের নির্বাচনে আবারও এমপি হন। এরশাদ সরকারের পতনের পর ওয়াক্কাস জমিয়তে উলামায়ে ইসলামে যোগ দেন এবং ২০০১ সালে ইসলামী ঐক্যজোট-এর প্রার্থী হিসেবে এমপি নির্বাচিত হন।

২০০১ সালে সংগঠনটি বিএনপি’র সংগে জোটবদ্ধ হয়। ২০০১ সালের নির্বাচনে দলটির দু’জন সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

জমিয়তে উলামায়ে ইসলামে অফিস সম্পাদক মাওলানা আব্দুল গফফার ছয়ঘরী জানিয়েছেন, আজ (১৪ জুলাই) বিকাল তিনটায় ২০ দলীয় জোট থেকে বেরিয়ে আসার ঘোষণা দেওয়া হবে। সম্প্রতি কিছু কার্যকলাপের কারণে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

 

 

ভুলুয়াবিডি/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন।