বিশ্বব‌্যাংক 'বঙ্গবন্ধু শিল্প নগর' উন্নয়নে দিচ্ছে ৫০ কোটি ডলার

বিশ্বব‌্যাংক ‘বঙ্গবন্ধু শিল্প নগর’ উন্নয়নে দিচ্ছে ৫০ কোটি ডলার

প্রকাশিত: ৮:৩১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১২, ২০২০

দেশের বৃহত্তম অর্থনৈতিক অঞ্চল ‘বঙ্গবন্ধু শিল্প নগর’ উন্নয়নে ৫০ কোটি ডলার (প্রায় ৪ হাজার ২৫০ কোটি টাকা) দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক। ‘প্রাইভেট ইনভেসমেন্ট অ্যান্ড ডিজিটাল এন্টারপ্রেনিয়ারশিপ (প্রাইড) ফর বেজা প্রজেক্ট’ নামে এক প্রকল্পের আওতায় এই ঋণ দেবে সংস্থাটি।

প্রকল্পের আওতায় সরকারের তরফ থেকেও ৩৮৬ কোটি ২৭ লাখ টাকা ব্যয় করা হবে। ফলে, প্রকল্পের আওতায় মোট ৪ হাজার ৬৩৬ কোটি টাকা খরচ করা হবে। বর্তমানে প্রকল্প তৈরির কাজ চলমান রয়েছে।

প্রকল্পে ৫০ কোটি ডলার ঋণ দেওয়ার জন্য ঋণচুক্তি করার জন্যও প্রস্তুত বিশ্বব্যাংক। বিশ্বব্যাংকের বোর্ড ইতোমধেই ঋণ অনুমোদন করেছে। এমন কী বিশ্বব্যাংক ও বাংলাদেশের মধ্যে ঋণের বিষয়ে নেগোসিয়েশন হয়ে গেছে। এখন বাকি শুধু ঋণ চুক্তি।

জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় প্রকল্পটি চূড়ান্ত অনুমোদন হলেই ঋণচুক্তি অনুষ্ঠিত হবে। ৩৪ বছরে ঋণ পরিশোধ করতে হবে। এর সুদের হার ১ দশমিক ২৫ শতাংশ এবং শূন্য দশমিক ৭৫ শতাংশ সার্ভিস চার্জসহ মোট ২ শতাংশ সুদ রয়েছে এই ঋণে।

বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির লক্ষ‌্যে কাজ করে যাচ্ছেন। কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও দেশের অর্থনৈতিক উন্নতির লক্ষ্যে সমগ্র বাংলাদেশে প্রায় ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হচ্ছে।

বেকারমুক্ত শিল্পনির্ভর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে ইকোনমিক জোনে আগামী ১৫ বছরের মধ্যে এসব জোনে অন্তত ১ কোটি মানুষের কর্মসংস্থানের পরিকল্পনা করা হয়েছে। যার মাধ্যমে দেশ পুরোপুরি বেকারমুক্ত হবে বলে মনে করে বাংলাদেশ ইকোনমিক জোন অথরিটি (বেজা)।

সূত্র জানায়, চট্টগ্রাম জেলার মীরসরাই, সীতাকুণ্ড ও ফেনী জেলার সোনাগাজীতে অবস্থিত ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগরী’র  আয়তন প্রায় ৩০ হাজার একর। এর অধিকাংশই মীরসরাইয়ে।

‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগর’ এলাকায় মাটি ভরাট ও অবকাঠামোগত উন্নয়ন কাজে নিয়োজিত বিভিন্ন দেশি বিদেশি প্রতিষ্ঠানকে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার লক্ষ্যে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড, চট্টগ্রাম পবিস-৩ নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

এ লক্ষ্যে ইতোমধ্যে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড চট্টগ্রাম পবিস-৩ কর্তৃক একটি ২০ এমভিএ উপকেন্দ্র (বেজা-১) নির্মাণসহ বিদ্যুতায়ন করা হয়েছে। বর্তমানে আরও ২টি উপকেন্দ্র নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে।

অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের বিশ্বব্যাংক উইংয়রে প্রধান (অতিরিক্ত সচিব) সাহাবুদ্দীন পাটোয়ারী বলেন, ‘সরকার দেশে বেশি বেশি কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে চায়। এই জন্য চট্টগ্রামের মীরসরাই ও সীতাকুণ্ড উপজেলা এবং ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় প্রায় ৩০ হাজার একর জমিজুড়ে গড়ে তোলা হচ্ছে দেশের সবচেয়ে বড় অর্থনৈতিক অঞ্চল। এই অর্থনৈতিক অঞ্চকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগর হিসেবে নামকরণ করা হয়। ’

সাহাবুদ্দীন পাটোয়ারী আরও বলেন, ‘এই প্রকল্প তৈরির জন‌্য বিশ্বব্যাংক ২০১৪ সাল থেকে বেজাকে সহায়তা দিয়ে আসছে। এরই অংশ হিসেবে ৫০ কোটি ডলার ঋণ  দিচ্ছে সংস্থাটি। প্রকল্পটি একনেক সভায় অনুমোদন পেলেই বিশ্বব‌্যাংকের সঙ্গে ঋণচুক্তি অনুষ্ঠিত হবে।’

পরিকল্পনা কমিশন সূত্র জানায়, ‘প্রাইড ফর বেজা প্রজেক্ট’ নিয়ে পিইসি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রকল্পের ডিপিপিতে (উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাব) কিছু সংশোধন করতে হবে।

এরপরই পরিকল্পনা কমিশন প্রকল্পটি চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য একনেকে উপস্থাপন করা হবে। অনুমোদন পেলে ২০২১ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২৫ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে এটি বাস্তবায়ন করবে বেজা।

প্রকল্পের আওতায় অর্থনৈতিক অঞ্চলে ৩০ কিলোমিটার দীর্ঘ ফোরলেন নির্মাণ করা হবে। এছাড়া, পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা, নিরাপত্তাবেষ্টনী, প্রশাসনিক ভবন, শিল্পনগরের কেন্দ্রীয় বর্জ্য শোধনাগার (সিইটিপি) নির্মাণ করা হবে।

এছাড়া প্রকল্পের আওতায় ৩১ কিলোমিটার স্ট্রম ওয়াটার নেটওয়ার্ক, সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট প্ল্যান্ট, বায়োগ্যাস প্ল্যান্ট, ওয়েস্ট সর্টিং অ্যান্ড ম্যাটারিয়াল রিকভারি, রুপটপ অ্যান্ড ফ্লোটিং সোলারের কাজ করা হবে।

 

ভুলুয়াবিডি/এএইচ

নিউজটি শেয়ার করুন।