মুশফিকের প্রস্তাব রাখলেন না বিসিবি

প্রকাশিত: ১:৫৫ পূর্বাহ্ণ, জুন ৫, ২০২০

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের মধ্যে পরিশ্রমী ক্রিকেটারের তালিকায় সবার আগে আসবে মুশফিকের নাম। শুধু মাত্র পরিশ্রমী নন; শিক্ষিত, বিচক্ষণ এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান নিজের ক্রিকেটীয় ক্যারিয়ারে হাতে গোনা কয়েকটি অনুশীলন মিস করেছেন।

তবে এই মুহুর্তে পরিস্থিতি ভিন্ন। মাঠের অনুশীলন ছাড়া ঘরে বসে থাকতে হচ্ছে তাকে। তারপরও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কাছে অনুমতি চাইছেন তিনি। কিন্তু বিসিবি কাছ থেকে এক প্রকার দুঃসংবাদই পেলেন দেশ সেরা এই ক্রিকেটার।

মুশফিকুর রহিম চেয়েছিলেন মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে এককভাবে অনুশীলন শুরু করতে। কিন্তু বিসিবি ‘না’! কারণ দেশের পরিস্থিতি ভালো না। দিনের পর দিন আক্রান্তের সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। তাই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে মুশফিককে।

সম্প্রতি মুশফিকের ব্যাপারে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরি জানান, কাউকে একা অনুশীলনের অনুমতি দেওয়া মানে তো শুধু একার ব্যাপার নয়। মাঠ ও উইকেট প্রস্তুত করার লোক রাখতে হবে, সাহায্য করার জন্য বেশ কয়েকজন লাগবে, নেট বোলার লাগবে। আরও কিছুর পারিপার্শ্বিকতা আছে। সব মিলিয়ে ব্যাপারটা ঝুঁকির হয়ে যায়।

এটা আসলে অনুমতি না দেওয়ার ব্যাপার নয়। আমরা পরিস্থিতি তুলে ধরেছি, মুশফিক তো খুবই সেন্সিবল, সে ভালোভাবেই বুঝতে পেরেছে। যখন সময় হবে, সবার জন্য একইরকম নিরাপদ পরিবেশ সৃষ্টি করে অনুশীলনের ব্যবস্থা করব আমরা। যোগ করেন নিজাম উদ্দিন।

কিন্তু মুশফিকের মন যে মানছে না বাসায় বসে থাকতে, তাই বিসিবিকে জানিয়েছিলেন। কিন্তু বিসিবি বলার পর নিজেও বুঝতে পেরেছেন।

এই বিষয়ে মুশফিক বলেন, মন তো মানে না, তাই নিজের মতোই প্র্যাকটিসের অ্যারেঞ্জমেন্ট করেছিলাম। কিন্তু উনারা বলার পর আমিও বুঝতে পেরেছি। মিরপুর এলাকার অবস্থা খুব ভালো নয়। মাঠকর্মীসহ আরও যারা থাকবেন অনুশীলনে, সবাইকে কোয়ারেন্টিনে রাখাও কঠিন হবে।

তাছাড়া আমাকে তো আবার বাসায় ফিরতে হবে অনুশীলন করে। পরিবারের সবার জন্যও ঝুঁকির হয়ে যায় সেটি।

সব মিলিয়ে ভেবে দেখলাম, ব্যাপারটা এই মুহূর্তে হয়তো ঠিক হবে না। উনারা বলেছেন, সামনে পরিস্থিতি এলে সবকিছু জীবাণুমুক্ত করে, সবার টেস্ট করিয়ে অনুশীলন শুরুর ব্যবস্থা করা হবে। আপাতত আরও অপেক্ষা করি। যোগ করেন মুশফিক।

 

ভুলুয়া বাংলাদেশ/এএইচ