রাজশাহীর তানোরে তৃতীয় শ্রেণির শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা

রাজশাহীর তানোরে তৃতীয় শ্রেণির শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা

প্রকাশিত: ৬:৪৫ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২৪, ২০২০

মুক্তার হোসেন (রাজশাহী প্রতিনিধি): রাজশাহীর তানোরে তৃতীয় শ্রেণির এক স্কুল পড়ুয়া শিশুকে জিনিস দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে বাড়ির পার্শ্বে সাত ঘরা নামক পুকুরের জঙ্গলে ডিপ ঘরে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে বলে অভিযোগ ওঠেছে একই গ্রামের পাড়া প্রতিবেশী দুই স্ত্রীর স্বামী রইস উদ্দিন নামের এক লম্পটের বিরুদ্ধে।

এমন চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে, চলতি মাসের ২০ জুলাই সোমবার দুপুরে। এতে করে এমন চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ফাঁস হয়ে পড়লে এলাকাজুড়ে দেখা দিয়েছে চাঞ্চল্যকর অবস্থা ও বিরাজ করছে উত্তেজনা।

মেয়ের পরিবার সূত্রমতে, এ ঘটনায় মেয়ের পরিবার থানা পুলিশকে জানাতে চাইলে গ্রামের মোড়ল কালাম,আজিজ, সাইফুল ও জাহাঙ্গীর তাদের থানায় মামলা করতে নিষেধ করে পাড়াতে বসে মিমাংসা করে সমঝোতা করে দিবে বলে আশ্বাস দিয়ে আসছেন। কিন্তু ঘটনার চার দিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত কোনো বিচার পায়নি মেয়ের পরিবার।

এমনকি এ ঘটনায় থানায় মামলা করতে না যেতে নিষেধ করে মেয়ের পরিবারকে দেয়া হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের হুমকি বলেও অভিযোগ করেন মেয়ের পরিবার।

মেয়ের বাবা শাকির উদ্দিন জানান, আমরা গরীব মানুষ সারাদিন বিলে মাছ ধরতে ব্যবস্ত থাকি। সেইদিনও আমি মাছ মারতে বিলে ছিলাম। পরে বাড়িতে এসে ঘটনাটি শুনে আমি পাড়ার মাতব্বরদের জানিয়ে থানায় মামলা করতে চাইলে তারা আমাকে মামলা করতে নিষেধ করে পাড়াতে বসে মিমাংসা করে সমঝোতা করে দিবে বলে আশ্বাস দেন।

কিন্তু ঘটনার চারদিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত তারা কোনো বিচার সালিশ করে দেয়নি। এমনকি থানায় যেন আমি মামলা না করি সেই জন্য আমার পরিবার সদস্যদের দেয়া হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের হুমকি।

তিনি আরও বলেন, আমরা গরীব মানুষ বলে কি কোনো বিচার পাবনা বলে ক্ষোভ প্রকাশ করে প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। এ বিষয়ে ধর্ষণের চেষ্টাকারী রইস উদ্দিননের বাড়িতে গিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি।

তানোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাকিবুল হাসান রাকিব জানিয়েছে,এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পায়নি। যদি এমন ঘটনা হয়ে থাকে তাহলে মেয়ের পরিবার অভিযোগ দিলে তদন্ত সাপেক্ষে আইন গত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে তিনি জানান।

 

ভুলুয়াবিডি/এএইচ

নিউজটি শেয়ার করুন।