রামগতি পৌর নির্বাচনে কারচুপিরর অভিযোগে ৪ মেয়র পদপ্রার্থীর নির্বাচন বর্জন

রামগতি পৌর নির্বাচনে ৪ মেয়র পদপ্রার্থীর নির্বাচন বর্জন

প্রকাশিত: ৬:২৪ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২১

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি পৌরসভা নির্বাচনে জালভোট, কেন্দ্র দখল, এজেন্ট বের করে দেয়া সহ নানা অভিযোগে বিএনপিসহ চার মেয়র পদপ্রার্থীরা নির্বাচন বর্জন করেছেন।

রবিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১ টার দিকে মেয়র পদে ৬ জন্য পদপ্রার্থীর মধ্যে একযোগে বিএনপি, জাতীয়পার্টি ও দুই স্বতন্ত্র প্রার্থী’সহ ৪ মেয়র প্রার্থী রামগতি উপজেলা নির্বাচন অফিসের সামনে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন।

নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন- বিএনপি সমর্থিত ধানের শীষ প্রতীকের সাহেদ আলী পটু, জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকের আলমগীর হোসেন, স্বতস্ত্র প্রার্থী জামাল উদ্দিন ও আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী আবি আবদুল্লাহসহ মোট ৪ জন মেয়র পদপ্রার্থী।

তাদের অভিযোগ, প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে ভোটগ্রহন শুরুর পর থেকেই ক্ষমতাশীল আওয়ামীলীগ’র লোকজন কেন্দ্রে প্রবেশ করে মেয়র পদপ্রার্থীদের এজেন্ট বের করে দেয়।এছাড়া ইভিএমে আঙ্গুলের চাপ নেয়ার পর নৌকার মেয়র পদপ্রার্থীর লোকজন জোরপূর্বক নিজেরাই নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে দিয়েছেন। এ বিষয়ে তারা সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে অভিযোগ করেও কোনও রকম প্রতিকার না পেয়ে ভোট বর্জনের সিদ্ধান্ত নেন।

এদিকে, অবাধ ও শান্তিপূর্ন ভোট হয়েছে বলে দাবী করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড্যাভোকেট নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন। তিনি জানান, নির্বাচনে পরাজয় জেনে বিএনপি, জাতীয়পার্টিসহ অন্য মেয়র পদপ্রার্থীরা নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে। নির্বাচন বর্জন তাদের পুরানো অভ্যাস।

তিনি আরও জানান, নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করাই বিএনপি সহ বিরোধীদের মূল কাজ। যাদের কোনও জনপ্রিয়তা নেই, এজেন্ট দেয়ার মতো লোক নেই, তারা ভোট বর্জন করেছে।

এদিকে, জেলা পুলিশ সুপার ড.এএইচএম কামরুজ্জামন জানান, নির্বাচনেকোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। ইভিএম এর মাধ্যমে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নিরাপদে মানুষ ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পেরেছে। এজন্য পুলিশ সর্বত্র সতর্ক থেকে আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পেরেছে।

 

 

ভুলুয়াবিডি/এএইচ

নিউজটি শেয়ার করুন।