রায়পুরে ক্ষুদ্র ঋণ পরিশোধে নেই কোনো বাধ্যবাধকতা

প্রকাশিত: ১১:৩০ অপরাহ্ণ, জুন ৪, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদন: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে ক্ষুদ্র ঋণের সুদ আদায় কার্যক্রম আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত সময়সীমা ছিল যা গত ২৫ মার্চে একটি পরিপত্রের মাধ্যমে জানিয়ে দেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাবরীন চৌধুরী।

তবে এ সময়ে ঋণ বিতরণে কোনো বাধা থাকবে না। আর কেউ স্বেচ্ছায় কিস্তি পরিশোধ করতে চাইলেও তা করতে পারবে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

গত শনিবার (৯ মে) থেকে রবিবার (১০ মে) পর্যন্ত সীমিত পরিসরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাঠ পর্যায়ে কার্যক্রম শুরু করা’ প্রসঙ্গে দুটি ভিন্ন পত্র এনজিও প্রতিনিধির কর্তৃক উপজেলা প্রশাসনের নিকট দাখিল করেছেন সাবরীন চৌধুরী।

সেই প্রেক্ষিতে কিস্তি পরিশোধে বাধ্য না করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে তাদের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।

ইতোমধ্যে রায়পুর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের তৃণমূল পর্যায়ের অসহায় ঋণগ্রহীতাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে সকল এনজিও প্রতিনিধিদের নিয়ে জরুরি সভা আহবান করা হয়। উদ্ভুত সমস্যা নিরসনে করোনা পরিস্থিতিতে ৩০ জুন পর্যন্ত অসহায় ঋণগ্রহীতাদের কিস্তি পরিশোধে বাধ্য না করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে তাদের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন।

তবে, কেউ স্বেচ্ছায় কিস্তি পরিশোধ করতে চাইলে তা করতে পারবেন বলেও তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন।

 

ভুলুয়া বাংলাদেশ/এএইচ