লক্ষ্মীপুরে কানের দুল ছিনিয়ে এক শিশুকে হত্যা, আটক-২

প্রকাশিত: ৯:১২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২, ২০২১

মিজানুর রহমান, রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) সংবাদদাতা: লক্ষ্মীপুর জেলার রায়পুরে পপি সাহা নামের সাত বছরের এক শিশুর কানের দুল ছিনিয়ে নিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশী পরিবারের বিরুদ্ধে।

নিহত শিশু একই এলাকার নির্মল সাহার মেয়ে ও রায়পুর উপজেলা সাগরদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী। বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রায়পুর উপজেলার ৭নং বামনী ইউনিয়নের সাগরদী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এর আগে নিহত শিশু পপি সাহার কানে থাকা স্বর্ণের দুল ছিনিয়ে নেয়া হয় অভিযোগ নিহতের স্বজনদের। এ ঘটনার বিচার দাবী জানিয়েছেন, নিহত শিশুর মা, আত্মীয়-স্বজন সহ পুরো এলাকাবাসী।

পুলিশ জানিয়েছেন, এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে এমরান হোসেন ও রুমা আক্তার নামে পরস্পর স্বামী-স্ত্রীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় এলাকাবাসী। পরে বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে নিহত শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

নিহতের স্বজন ও পুলিশ জানায়, স্থানীয় নেফাল সাহা বাড়ীর পার্শ্ববর্তী আবুল কাশেমের ঘর ভাড়া নিয়ে আটক এমরান-রুমা আক্তার দম্পতি বসবাস করে আসছিলো। পাশাপাশি হওয়ায় ওই ঘরে যাতায়াত ছিল শিশু পপি’র। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় নিজ ঘর থেকে বের হয়ে আর বাড়ি ফেরা হয়নি তার।

এরপর খোঁজাখুঁজির পর ওই দম্পতির ঘরের খাটের নিচে তার (শিশুর) মৃতদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দিয়েছে স্বজনরা। এসময় ওই দম্পতিকে আটক করে বেঁধে রাখেন এলাকাবাসী। এ সময় তারা (এমরান ও তার স্ত্রী) ওই শিশুর স্বর্ণালংকার নিয়ে তাকে হত্যার কথা স্বীকার করেছন বলে এমনটি জানান স্থানীয়রা। পরে পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হয় তাদের।

নিহত শিশুর মা ববিতা রানী সাহা জানিয়েছেন, তিন আনা ওজনের স্বর্ণের দুল কানে পরা ছিল পপির। সকালে খুলতে গেলে কানে ব্যথা পাবে বলে চলে আসে। এরপর আর বাড়ী ফিরেনি সে।

রায়পুর থানার ওসি আব্দুল জলিল জানান, শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে, প্রাথমিকভাবে হত্যাকান্ডই মনে হচ্ছে। দুইজনকে আটক করা হয়েছে। ময়না তদন্ত প্রতিবেদনের পর পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

 

ভুলুয়াবিডি/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন।