লক্ষ্মীপুরে সন্ত্রাসীদের ছুরিকাঘাতে অটোরিকশা চালক নিহত, আটক-১

প্রকাশিত: ৩:০৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২১

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরে সুপারি চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালক মোহাম্মদ দুলাল (৫০)’কে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা।

শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকালে মেহেদী হাসান (১৮) নামে ১ জনকে আটক করে পুলিশ। তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক ঘটনাস্থল থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত চুরিটি উদ্ধার করা হয়। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে (১৬ সেপ্টেম্বর) গভীর রাতে সদর উপজেলা মান্দারি ইউনিয়ন মোহাম্মদনগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে জানিয়েছেন পুলিশ। আটক মেহেদী হাসান মোহাম্মদনগর এলাকার হাফিজের ছেলে।

নিহত অটোরিকশা চালক মোহাম্মদ দুলাল সদর উপজেলা মান্দারি ইউনিয়নের মোহাম্মদনগর এলাকার মৃত আজিজ উল্যার ছেলে ও ৫ সন্তানের জনক। তিনি পেশায় একজন সিএনজি অটোরিকশা চালক। তার শরীরে ডানপাশে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে স্থানীয় ইউপি সদস্য মাসুদ মেম্বারের সুপারি বাগান থেকে সুপারি চুরি করে নাজিম ও আসিফ নামের দুইজন। এসময় চুরির দৃশ্যটি মোবাইলে ভিডিও ধারণ করে অটোরিকশা চালক দুলালের ছোট ছেলে মুরাদ।

এ সময় চুরির ভিডিও সুপারির বাগান মালিককে দেখিয়ে দিবে বললে, নাজিম ও আসিফ তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। তাই মুরাদকে তুলে নিয়ে প্রাণে হত্যা করতে নাজিম তার বন্ধু মেহেদী হাসানকে ভাড়া করে। এ নিয়ে মেহেদী হাসান দিনভর চালক দুলাল ও ছেলে মুরাদকে হত্যার হুমকি দেয়।


নিহত অটোরিকশা চালক মোহাম্মদ দুলাল।


এ ঘটনায় রাত সাড়ে ১০টার দিকে বাড়ির পাশে দোকানের সামনে চালক দুলাল ও মেহেদী হাসানের বাবা হাফিজের বাকবিতন্ডা শুরু হয়। এ সময় বাহির থেকে এসেই, কোনো কিছু বুঝে উঠার আগেই প্রকাশ্যে ছুরি দিয়ে পেটে আঘাত করে মেহেদী হাসান। এতে মাটিতে লুটে পড়ে বৃদ্ধ চালক দুলাল। পর স্থানীয়রা ঘটনাস্থল থেকে মুমুর্ষ অবস্থায় চালক দুলালকে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

এ খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে মোহাম্মদনগর এলাকা থেকে অভিযুক্ত মেহেদী হাসানকে আটক করে পুলিশ। এরপরে তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক ঐ ঘটনাস্থল থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরিটি উদ্ধার করা হয় এবং মরদেহটি ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠায় তারা।

এদিকে নিহতের ছেলে রাশেদ ও বোন জীবনীসহ স্বজনরা জানায়, অটোরিকশা চালক দুলাল খুবই অসহায়। মাত্র কয়েকদিন পূর্বে ব্রাক থেকে ঋণ নিয়ে অটোরিকশার কিনে চালাতো সে। অটোরিকশা থেকে যে আয় হয়, তা- দিয়েই পুরো সংসারের খরচ চলতো। সংসারের একমাত্র আয় উপার্জক্ষম ব্যক্তিটিকে হারিয়ে দিশেহারা এখন পরিবারের সদস্যরা।

এবিষয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ একেএ ফজলুর হক মুঠো ফোনে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় অভিযুক্ত মেহেদী হাসানকে আটক করা হয়েছে। উদ্ধার করা হয়েছে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরিটি। মামলা হলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

 

ভুলুয়াবিডি/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন।