লক্ষ্মীপুরে ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা, রিকশাচালক বিল্লাল গ্রেফতার

লক্ষ্মীপুরে ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা, রিকশাচালক বিল্লাল গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৯:৩১ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৬, ২০২০

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জে ৫ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে রিকশা চালক বিল্লাল হোসেন (৪০)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (৫ অক্টোবর) দুপুরে পুলিশ অভিযানো রায়পুর উপজেলার একটি গ্রাম থেকে বিল্লাল হোসেনকে গ্রেফতার কর হয়।

গ্রেফতারকৃত বিল্লাল হোসেন রামগঞ্জ উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের মাসিমপুর গ্রামের বৈরাগী বাড়ি মৃত মুসলিম মিয়ার ছেলে ও পেশায় তিনি রিকসা চালক।পুলিশ জানান, সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) স্পীনা রানী প্রামানিকের সহযোগীতায় গভীর রাতে মোবাইল ট্র্যাকিংয় রিকশাচালক বিল্লালকে গ্রেফতার করা হয়।

এর আগে বিল্লাল ৪ অক্টোবর দুপুরে রিকশাচালক বিল্লাল রামগঞ্জ চন্ডিপুর ইউনিয়নের মাসিমপুর গ্রামের বৈরাগী বাড়ির তার বসতঘরে শিশু শিক্ষার্থীকে চকলেটের লোভ দেখিয়ে ডেকে নিয়ে ধর্ষনের চেষ্টা চালায়। দীর্ঘক্ষণ ঘরে ফিরে না আসায় শিশুটির মা তাকে খুঁজতে বের হয়ে বিল্লালের বসতঘর থেকে চিৎকারের আওয়াজ পেলে স্থানীয় লোকজনকে ডেকে আনে।

এ সময় লোকজনের উপস্থিতি টের পেয়ে বিল্লাল হোসেন পালিয়ে যায়। এরপর সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) স্পীনা রানী প্রামানিকের সহযোগীতায় রামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, ওসি (তদন্ত) কার্তিক চন্দ্র দাস ও এস আই ইভা সাহা কয়েকজন পুলিশ নিয়ে বিল্লালকে গ্রেফতার করা হয়।

শিশুটির মা জানান, স্থানীয় কয়েকজন মাতাব্বর ঘটনা ধামাচাপা দিতে স্থানীয়ভাবে মিমংসা করে দেওয়ার কথা বলে কাল ক্ষেপন করেন। এরপর স্থানীয় বিচার না পেয়ে তিনি ক্ষোভে রামগঞ্জ থানায় ছুটে আসেন।

পরে ঘটনা থানার ওসিকে জানালে তিনি মামলা করার জন্য পরামর্শ দেন। পরে রোববার দিবাগত রাত ১২টায় তিনি বাদী হয়ে বিল্লালকে অভিযুক্ত করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে রামগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় পুলিশ বেল্লালকে গ্রেফতার করেন।

রামগঞ্জ থানা তদন্তকারী কর্মকর্তা ইভা সাহা জানান, তারা প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা পেয়েছেন। গ্রেফতারকৃত বিল্লাল হোসেনকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে শিশুর জবানবন্ধী নিয়ে তার মায়ের জিম্মায় পৌঁছে দেয়া হয়।

 

ভুলুয়াবিডি/এএইচ

নিউজটি শেয়ার করুন।