লক্ষ্মীপুরে ৬ বছর শিশুকে ধর্ষণ!

লক্ষ্মীপুরে ৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণ!

প্রকাশিত: ৯:৪০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩, ২০২০

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরে ৬ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে বখাটে স্থানীয় ব্যবসায়ী বাদশার বিরুদ্ধে। সোমবার (০৩ আগস্ট) বিকালে সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ ইউনিয়েনের চরমনসা এলাকায় জেলার শিবচর উপজেলার এ ঘটনা ঘটে।

শিশুটিকে উদ্ধার করে সন্ধ্যায় লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অভিযুক্ত বাদশা ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছেন। তাঁকে আটক করতে অভিযানে নেমেছে পুলিশ। মো. বাদশা (৫২) সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ ইউনিয়েনের চরমনসা এলাকার মৃত আব্দুল গনি ছেলে। সে এলাকায় মৎস্য ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত।

শিশুটির পরিবার ও পুলিশের ভাষ্যমতে, সোমবার বিকালে শিশুটিকে চকলেটের লোভ দেখিয়ে বাড়ির পাশের একটি বাগানে নিয়ে যায় বাদশা। পরে তাকে ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করেন। এ সময় শিশুটির চিৎকারে বাগানের পাশে খেলতে থাকা অন্য শিশুরা বিষয়টি টের পেয়ে স্থানীয় লোকজনকে জানায়। স্থানীয় লোকজন শিশুটিকে উদ্ধারে ছুটে এলে ওই ব্যক্তি পালিয়ে যান। পরে ছয় বছরের শিশুটিকে সোমবার সন্ধায় লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

শিশুটির মা অভিযোগ করে বলেন, আমার মাইয়াডারে চকলেটের লোভ দেখাইয়া নির্যাতন করে বাদশা। আমার নিষ্পাপ মাইয়া ওর কী ক্ষতিহান করছিল।

শিশুটির চাচা বলেন, মাইডারে নিয়া এহন হাসপাতালে আইছি। ডাক্তারের এহনো পরিষ্কার কইরা কিছু বলে না। ভয়ের মধ্যে আছি। ঘটনার পর হাসপাতালে পুলিশ আসছিল। তাদের কাছে অভিযোগ করেছি।

একাধিকবার বাদশার সাথে যোগাযোগ করা হলেও তাঁকে পাওয়া যায়নি। তবে তার প্রতিবেশি বলেন লোকমুখে শুনেছি, বাদশা নাকি ওই মেয়েকে ধর্ষণ করে পালিয়েছেন। আমরা তাঁর বিচার চাই।

সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আনোয়ার হোসেন বলেন,‘সন্ধায় শিশুটিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আমরা শিশুটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছি। শিশুটি ছোট। ধর্ষণ হয়েছে কি না, তা পরীক্ষা না করে বোঝা যাবে না।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আজিজুর রহমান জানান, শিশু ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ পেয়েছি, ইতিমধ্যে অভিযুক্তকে আটক করতে মাঠে নেমেছে পুলিশ।

 

ভুলুয়াবিডি/এএইচ

নিউজটি শেয়ার করুন।