শেয়ারবাজারে ২'শ কোটি টাকা করে বিনিয়োগের উদ্যোগ

শেয়ারবাজারে ২’শ কোটি টাকা করে বিনিয়োগের উদ্যোগ ব্যাংকগুলোর

প্রকাশিত: ৯:১১ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১৬, ২০২১

শেয়ারবাজারের উন্নয়নে তফসিলি ব্যাংকগুলোর বিশেষ তহবিল বাবদ ২’শ কোটি টাকার বিনিয়োগে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ও বাংলাদেশ ব্যাংক।

সোমবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে সিকিউরিটিজ কমিশন ভবনে দুই নিয়ন্ত্রক সংস্থার দ্বিপক্ষীয় মতবিনিময় সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি উল্লেখ করা হয়, বিএসইসি ও বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামের সভাপতিত্ব করেন। ওই সভায় পুঁজিবাজারের উন্নয়নে যে কোন বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণের পূর্বে সমন্বিতভাবে আলোচনার ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত গ্রহণের বিষয়ে ফলপ্রসু আলোচনা হয়েছে। সভায় দু’টি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা নীতিগতভাবে এসব বিষয়ে একমত হয়েছেন।

একইসঙ্গে বিশেষ মিউচ্যুয়াল ফান্ডে (এসপিএফ) তফসিলি ব্যাংকগুলাকে ২০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে ২০১৫ সালে বাংলাদেশ ব্যাংকের জারিকৃত সাকুর্লারে কিছুটা পরিবর্তন আনা হয়েছে। আর সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (সম্পদভিত্তিক বিধিমালা), ২০০৪ এর যুগোপোযোগীর মাধ্যমে এসপিডি’র তহবিল সম্পদ ভিত্তিক সিকিউরিটিজে বিনিয়োগের পাশাপাশি অন্যান্য ফিক্সড ইনকাম সিকিউরিটিজ যেমন- সুকুক, কর্পোরেট বন্ড, গ্রিন বন্ড ইত্যাদিতে বিনিয়োগের সুযোগ সৃষ্টির বিষয়ে নীতিগতভাবে একমত পোষণ করেছে উভয় নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

সরকারি ট্রেজারি বিল ও বন্ড স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেনের সুযাগ সৃষ্টির মাধ্যমে পুঁজিবাজারের সকল স্তরের বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক ও বিএসইসি যৌথভাবে কাজ করবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়, শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানসমূহের লভ্যাংশে প্রদানের ক্ষেত্রে কর প্রদান সংক্রান্ত জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনকিআর) কর্তৃক জারিকৃত সার্কুলারের কার্যকারিতা বাতিলের বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক ও বিএসইসি এনবিআরকে অনুরোধ জানানো বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এ বিষয়ে উভয় প্রতিষ্ঠান প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

এছাড়া কমিশন কর্তৃক অনুমোদিত টায়ার-১ এর অ্যাডিশনাল ক্যাপিটাল হিসেবে ব্যাংকের মাধ্যমে ইস্যুকৃত পার্পেচু্য়াল বন্ড স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্তির মাধ্যমে দ্রুত লেনদেনের প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।

আর মিউচ্যুয়াল ফান্ডে উদ্যোক্তা হিসেবে ব্যাংকের বিনিয়োগ সংক্রান্ত এবং ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ক্যাপিটাল মার্কেট এক্সপোজার গণনার ক্ষেত্রে বিনিয়োগকৃত সিকিউটিজের বাজার মূল্যের পরিবর্তে ক্রয় মূল্যের ভিত্তিতে গণনা করার বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিনিধিরা কমিশনকে আশ্বস্ত করেন।

 

 

ভুলুয়াবিডি/এএইচ

নিউজটি শেয়ার করুন।