ফাইল: ছবি

সোনারগাঁওয়ে একই পরিবারের ৫ জনকে কুপিয়ে জখম

প্রকাশিত: ১:৪৫ পূর্বাহ্ণ, জুন ২৯, ২০২০

সোনারগাঁও সংবাদদাতা: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের নোয়াগাঁও ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধে প্রতিপক্ষের হামলায় একই পরিবারের মহিলাসহ ৫ জনকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করেছে। শনিবার (২৭ জুন) সকালে এ ঘটনা ঘটে।

পরে আহতদের সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ভূক্তভোগী মোঃ সেলিম মিয়া বাদী হয়ে শনিবার রাতে সোনারগাঁও থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সোনারগাঁও থানায় দায়ের করা অভিযোগ থেকে জানা যায়, উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের বাসিন্দা ও যুবলীগ নেতা খাইরুল ইসলাম হিন্দু সম্প্রদায়ের গনেশ দত্তের জমি সোনারগাঁও উপজেলা ভূমি অফিসের কর্মকর্তাদের উৎকোচের বিনিময়ে লিজ কেটে তার নামে করে নেয়।নিজের নিয়মানুযায়ী লিজকৃত জমির দখলে রাখতে হয়।

গনেশ দত্তের জমি লিজ কেটে নিয়ে যাওয়ার পর গনেশ দত্ত পুনরায় সোনারগাঁও ভূমি অফিসে যুবলীগ নেতা খায়রুলের লিজ বাতিলের আবেদন করেন। লিজ বাতিলের আবেদনের পর নোয়াগাঁও ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা সরেজমিনে পরিদর্শনে গিয়ে জায়গাটি গনেশ দত্তের দখলে পান।

এ নিয়ে সামাজিকভাবে মিমাংসার চেষ্টা চলে। গনেশ দত্তের দখলে থাকায় ওই জমিতে আধাপাকা ও কাঁচাঘর নির্মাণ করে বসবাস করেন গনেশ দত্ত গং। জমিটি একই দাগে হওয়ার কারনে পার্শ্ববর্তী সেলিম মিয়ার ক্রয়কৃত জমি পতিত থাকার কারনে ওই জমি দখলের চেষ্টা করে যুবলীগ নেতা খায়রুল ইসলাম।

এদিকে শনিবার সকালে যুবলীগ নেতা খায়রুল ইসলাম পুনরায় ওই জমি দখল করে গেলে বাঁধা দেন সেলিম মিয়া। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আব্দুল ওহাবের ছেলে খায়রুল ইসলামের নেতৃত্বে ফারুক, শফিকুল, ইলিয়াস, রুবেল, কবিরসহ ৩০-৪০ জনের একটি বহিরাগত লোকজন নিয়ে ওই জমির কলাগাছসহ বিভিন্ন ফসলের গাছ কেটে টিনের বেড়া দিয়ে সাইনবোর্ড লাগিয়ে দেয়।

পুনরায় বাঁধা দেওয়ায় দেশীয় অস্ত্র দা, বল্লম, চাইনিজ কুড়াল ও লোহার রড নিয়ে হামলা করে সেলিম মিয়া, মোঃ হালিম মিয়া, নার্গিস বেগম, আয়েশা আক্তার, শাহিনা আক্তারকে আহত করে।

আহতদের ডাক চিৎকারে আশেপাশের লোকজন তাদের উদ্ধার করে সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। আহতদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা খায়রুল ইসলাম জানান, আমি আমার লিজকৃত সম্পত্তি দখল করছি। সেলিম মিয়ার লোকজন আমার সম্পত্তিতে দেওয়া টিনের বেড়া ভাংচুর করে লুটপাট করেছে।

সোনারগাঁও থানার পরিদর্শক তদন্ত শরীফ আহমেদ বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনাস্থলে তদন্তে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি গুরুত্বের সাথে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ভুলুয়াবিডি/এএইচ